Friday, March 1, 2024

পাকিস্তানে বন্দিশালায় সেনা অভিযানে ২৫ জঙ্গি নিহত

তারিখ:

পাকিস্তানের একটি বন্দিশালায় অভিযান চালিয়ে সেখানে অবরুদ্ধ ৩৫ জঙ্গির মধ্যে ২৫ জনকে হত্যা করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এসময় এক জিম্মি ও নিরাপত্তা বাহিনীর দুই কমান্ডোর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর বান্নুর একটি সন্ত্রাসবিরোধী কেন্দ্রে এ অভিযান চালানো হয়।

রোববার (১৮ ডিসেম্বর) নিষিদ্ধ ঘোষিত তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) জঙ্গিরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদকারীদের পরাস্ত করে তাদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয় ও কেন্দ্রটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। এরপর দুইদিনের অবরুদ্ধ অবস্থার পর সেনাবাহিনীর কমান্ডোরা কেন্দ্রটিতে অভিযান চালায়।

এক টুইটবার্তায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদের পুনরুত্থান আমাদের জাতীয় নিরাপত্তার প্রতি নতুন হুমকি। আমাদের সাহসী নিরাপত্তা বাহিনী এই হুমকি মোকাবেলায় সম্পূর্ণ সমর্থ’।

অন্যদিকে দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আহমেদ শরীফ স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল জিও নিউজকে জানান, সন্ত্রাস-বিরোধী কেন্দ্রটিতে থাকা ৩৫ জঙ্গির মধ্যে সাতজন আত্মসমর্পণ করেন ও পালানোর সময় আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়াও একজন জিম্মি ও এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা অভিযান চলাকালে নিহত হন।

এর আগে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাজা আসিফ জানিয়েছিলেন, সব জঙ্গিকে হত্যা করে সব জিম্মিকে উদ্ধার করা হয়েছে।

তবে পরে তিনি বলেন, সেনাবাহিনী অভিযানের চূড়ান্ত পরিসংখ্যান ও বিস্তারিত জানাবে।

জেনারেল শরিফ জানান, প্রথমে এক জঙ্গি তার জিজ্ঞাসাবাদকারীকে ইট দিয়ে আঘাত করে তার অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়। পরে কেন্দ্রটিতে বন্দি থাকা অন্য জঙ্গিরা মুক্ত হয়ে স্টোররুম ভেঙ্গে অস্ত্র নিয়ে নেয়।

তিনি বলেন, তাদের নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করাতে অনেক চেষ্টা করা হলেও তারা রাজি হয়নি।

আলোচনায় দুই দিন ধরে চলা অচলাবস্থার সমাধান না হওয়ার পর মঙ্গলবার সেনাবাহিনীর কমান্ডোরা কেন্দ্রটিতে অভিযান চালায়। এ সময় দুই কমান্ডো নিহত হওয়ার পাশাপাশি তিন কর্মকর্তাসহ ১০ সেনা আহত হয়।

জনপ্রিয় সংবাদ