Tuesday, February 27, 2024

বিদ্যুৎখাতে ঋণ পেতে আইএমএফকে যা বললো পিডিবি

তারিখ:

আইএমএফ প্রতিনিধি দল তথ্য সংগ্রহের জন্য বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) সঙ্গে বুধবার (২ অক্টোবর) বৈঠক করেছে। এতে সরকারের কাছ থেকে ভর্তুকি গ্রহণ ও ক্যাপাসিটি পেমেন্ট বিষয় দুটিকে সামনে আনে আইএমএফ প্রতিনিধি দল।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, আইএমএফের প্রতিনিধিদের প্রথম প্রশ্ন ছিল, সরকারের কাছ থেকে ভর্তুকি না নিয়ে বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে ঋণ নিলে পিডিবির লোকসান হয় কি না? এই প্রশ্নের উত্তরে পিডিবির চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বলেছেন, বিদ্যুৎ পাওয়া জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। এ জন্য সরকারকে কিছুটা দায় নিতে হয়। সঙ্গত কারণেই সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদনে পিডিবিকে ভর্তুকি দেয়। বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে ঋণ নিলে পিডিবিকে ঋণের অর্থ ও সুদ দুটি পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু সরকারের কাছ থেকে ভর্তুকি নিলে তা পরিশোধ করতে হয় না। এটি আমাদের জন্য সুবিধাজনক।

সরকার ভর্তুকি বন্ধ করে দিলে পিডিবি কী করবে জানতে চাইলে পিডিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, তখন পিডিবি সরকারের নীতি মেনেই কাজ করবে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনে সরকার প্রতিবছর বাজেটে নির্দিষ্ট পরিমাণ বরাদ্দ রাখে। ভর্তুকি হিসাবে এই অর্থ পিডিবিকে দেওয়া হয়। যদিও অর্থ বিভাগ বরাবরই বলে থাকে দুই শতাংশ সুদে এটি পিডিবির জন্য ঋণ সহায়তা। কিন্তু কোনো দিনই পিডিবি এই অর্থ ফেরত দেয় না।

আইএমএফের প্রতিনিধি দল জানতে চায়, ২০৩০ সালের পর ক্যাপাসিটি পেমেন্ট আর পরিশোধ করতে হবে কি না? এই প্রশ্নে পিডিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা এখনো বিষয়টি পর্যালোচনা করেনি। বেশ কয়েকটি নতুন বেসরকারি বিদ্যুৎ কেন্দ্র আসছে। এসব বিদ্যুৎ কেন্দ্র উৎপাদনে আসলে ক্যাপাসিটি পেমেন্ট পরিশোধ করতে হবে। এখনই ক্যাপাসিটি পেমেন্টের বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

সম্প্রতি আইএমএফের কাছে সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ। এই সহায়তা চাওয়ার পর আইএমএফ অর্থনৈতিক নানা খাতে সংস্কারের কথা বলছে। বিশেষ করে বিভিন্ন খাতের ভর্তুকি কমাতে বলছে প্রতিষ্ঠানটি।

মিশন প্রধান রাহুল আনন্দের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দলটি আগামী ৯ নভেম্বর পর্যন্ত অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করবে। বাংলাদেশ সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ চাওয়ার পর আনুষ্ঠানিক আলোচনার জন্য এ মিশন ঢাকায় এসেছে।

বৈঠকে পিডিবি চেয়ারম্যান ছাড়াও পিডিবির কয়েকজন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

তবে পিডিবি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান এ বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

জনপ্রিয় সংবাদ