Sunday, February 25, 2024

৬ টাকা বেতন দিতে পারতেন না, সবার সামনে আমিরকে অপমান করতেন অধ্যক্ষ!

তারিখ:

বাবা-মা ছিল ঋণে জর্জরিত। চার ভাইবোন স্কুলের বেতন দিতে পারছিলেন না। তাদের মধ্যে সবচেয়ে বড় আমির খান। যিনি এখন বলিউডের ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ফিরে দেখলেন নিজের শিকড়। জানালেন, স্কুলে যেতেই ভয় লাগতো। অধ্যক্ষ সবার মাঝখানে নাম ধরে ডেকে মনে করিয়ে দিতেন কত মাসের স্কুল ফি বাকি! খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

আমির জানান, ৮ বছর ধরে পারিবারিক দৈন্যের মুখোমুখি হয়েছেন। যখন তিনি ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়তেন, তখন স্কুলের বেতন ছিল ৬টাকা। সপ্তম শ্রেণিতে ৭টাকা। সেটুকুও আমির ও তার ভাইবোনেরা দিতে পারতেন না। বলেন, আমরা সব সময় দেরিতে বেতন দিতাম। সবার সামনে নাম ধরে ধরে ডাকা হতো আমাদের- এসব কথা বলতে বলতে চোখ ভিজে যায় আমিরের।
‘ইয়াদোঁ কি বরাত’ (১৯৭৩) ছবিতে শিশু অভিনেতা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন আমির। যৌবন পার হতে নায়ক হিসাবে, জুহি চাওলার বিপরীতে ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’ (১৯৮৮)-এ সাড়া ফেলেছিলেন। তারপর একে একে সফল ছবির বন্যা।

তার উল্লেখযোগ্য ছবিগুলো হলো- ‘রাখ’ (১৯৮৯), ‘দিল’ (১৯৯০), ‘রাজা হিন্দুস্তানি’ (১৯৯৬), ‘সরফরোশ’ (১৯৯৯), ‘লগান’ (২০০১), ‘রং দে বাসন্তী’ (২০০৬), ‘তারে জামিন পার’ (২০০৭), ‘দঙ্গল’ (২০১৬) ইত্যাদি। বর্তমানে আমিরের ‘লাল সিং চাড্ডা’ রিলিজ হওয়ার প্রহর গুনছে। দীর্ঘ যাত্রাপথে ভক্তের হৃদয়ে তিনি পাকাপাকি আসন জিতে নিয়েছেন। তবু অতীতকে অস্বীকার করেননি আমির।

জনপ্রিয় সংবাদ