Tuesday, February 27, 2024

সরকারি অনুদানের সিনেমায় রাজের সঙ্গে মিথিলা!

তারিখ:

মনপুরা’ খ্যাত নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিমের সিনেমায় আবারও যুক্ত হলেন অভিনেতা শরিফুল রাজ। ২০১৯-২০ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পাওয়া এই সিনেমাটির নাম ‘কাজল রেখা’। অবশেষে এর কাজ শুরু হচ্ছে। সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সিনেমার অভিনয়শিল্পীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

সিনেমাটিতে শরিফুল রাজের সঙ্গে থাকছেন রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। যিনি বর্তমানে দুই বাংলায় চুটিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। কলকাতার এক হালি সিনেমায় অভিনয় করেছেন, পা গলিয়েছেন ওয়েব সিরিজেও। এবার তাকে দেখা যাবে কাজল রেখার গল্পে কঙ্কণ দাসী চরিত্রে।

এই সিনেমার নাম ভূমিকায় ও থাকছে নতুন চমক। নবীন এক অভিনেত্রীকে দেখা যাবে পর্দায়। তার নাম মন্দিরা চক্রবর্তী। তিনি ২০১২ সালে ‘চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ে’ প্রতিযোগিতায় রানারআপ হয়েছিলেন। এবার গিয়াসউদ্দিন সেলিমের মতো নন্দিত নির্মাতার হাত ধরে আসছেন রূপালি পর্দায়।

জানা গেছে, প্রায় চারশো বছর আগের লোককাহিনী অবলম্বনে নির্মিত হবে ‘কাজল রেখা’। তাই অভিনয়শিল্পীদের সেই অনুযায়ী ব্যাপক প্রস্তুতি নিতে হচ্ছে। মন্দিরা জানান, প্রায় এক বছর ধরে তিনি গ্রুমিং করছেন। তবে তাকে চূড়ান্ত করা হয় মাস দেড়েক আগে। গণমাধ্যমকে মন্দিরা বলেন, সেলিম ভাইয়ের মতো একজন বড় পরিচালকের বড় প্রজেক্টের নাম ভূমিকায় অভিনয় করব আমি, তাই প্রথমে নার্ভাস লাগছিল। আবার এক্সসাইটেডও হয়েছি। কারণ, আমার প্রথম ছবিই সেলিম ভাইয়ের স্বপ্নের প্রজেক্ট!

‘কাজল রেখা’ গিয়াসউদ্দিন সেলিমের স্বপ্নের প্রজেক্ট। ২০০৯ সালে ‘মনপুরা’ সিনেমা মুক্তির পরই তিনি এই সিনেমার চিত্রনাট্য লেখেন। কিন্তু নানাভাবে চেষ্টা করেও কাজটি শুরু করতে পারেননি। অবশেষে সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। নেত্রকোনার দুর্গাপুর, সিলেটের হাওর ও বঙ্গোপসাগরে হবে সিনেমাটির শুটিং।

শরিফুল রাজ বেশ কিছুদিন আগেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এই সিনেমায়। তরুণ এ অভিনেতা বলেছেন, এটি ৪০০ বছর আগের গল্পের চরিত্র। তাই অনেক বেশি চ্যালেঞ্জ আছে চরিত্রটিতে। তবে চিত্রনাট্যটি পড়ার সময় কাজল রেখার সেই রূপকথার গল্পের মজাটা পাচ্ছি। নিজের মধ্যে একটা অ্যাডভেঞ্চার কাজ করছে। যেহেতু সেলিম ভাইয়ের কাজ এটি। ভালো কিছু হবে।

জনপ্রিয় সংবাদ